ডিজে মারুফ

কিছু বাংলা ডান্স নাম্বার বানাতে চাই: ডিজে মারুফ

মীর মারুফের জন্ম ১৬ই ডিসেম্বর, জন্ম এবং বেড়ে ওঠা ঢাকাতেই। যদিও এখন তিনি ডিজে মারুফ নামেই অধিক পরিচিত। ক্যারিয়ারের বৃহস্পতিও এখন তুঙ্গে। গত ৫ই সেপ্টেম্বর ইউটিউবে রিলিজ পায় তাঁর গান ‘বাবু খাইছো’। মুক্তির সাথে সাথেই ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে গানটি।

৭ দিনের ভেতরেই ২০ লাখ ভিউ বার হয় গানটির ভিডিও। ক্ল্যাসিকাল মিউজিকে দীক্ষা নিয়েছেন আর ডিজে হওয়ার বেসিক শিক্ষা নিয়েছেন গ্যারাজ থেকে। শত ব্যস্ততার মাঝে উনি কথা বলতে রাজি হয়েছিলেন আমাদের গ্রুভবিডি’র সাথে। কথা হলো তাঁর আসন্ন গান ‘নাগিন’ নিয়ে। নীচে তুলে ধরা হলো সেই কথোপকথন :-

গ্রুভবিডি : আমাদের সাথে কথা বলার জন্য ধন্যবাদ। আপনি কেমন আছেন আর কি করছেন আজকাল?

ডিজে মারুফ : আল্লাহর রহমতে সবকিছু ঠিকঠাকমত চলছে। আগের মত শো হচ্ছে না। বেশিরভাগ সময় বাসাতেই কাটাচ্ছি আর নতুন মিউজিকের প্ল্যান করছি।

গ্রুভবিডি : কিছুদিন আগে রিলিজ পেয়েছে আপনাদের নতুন গান ‘নাগিন’। এই গানের পেছনের চিন্তাভাবনা কি ছিলো?

ডিজে মারুফ : আমি আগেও বলেছি আমরা (মীর ব্রাদার্স) কিছু বাংলা ডান্স নাম্বার বানাতে চাই এবং এজন্যে নাগিনের চেয়ে ভালো থিম হতে পারে না। ‘আসি আসি বলে জোছনা ফাঁকি দিয়েছে’ এর অনেকদিন পর মীর ব্রাদার্সের নতুন গান ‘নাগিন’ এলো।

গ্রুভবিডি : সাউন্ড এবং স্টাইলের দিক থেকে এটিকে কিভাবে ব্যাখ্যা করবেন?

ডিজে মারুফ : এটি একটি মডার্ন গান। আমরা এখানে ক্লাব স্টাইলের মিশ্রণ ঘটিয়েছি। এছাড়া বিন সাউন্ড হিসেবে ইন্ডিয়ান স্টাইলের মিউজিকও রয়েছে৷

গ্রুভবিডি : কিভাবে এই গানটি তৈরীর অনুপ্রেরণা পেলেন?

ডিজে মারুফ : কেন হিন্দি নাগিন বাজাবো? যখন আমাদের নিজেদেরই ডান্স নাম্বার আছে যেটা মনে রাখা এবং এর তালে নাচা খুব সহজ?! এছাড়া ‘বাবু খাইছো’ গানের প্রতি মানুষ যেরকম ভালোবাসা দেখালো সেটিও অনুপ্রাণিত করেছে আমাকে।

গ্রুভবিডি : কোথায় কোথায় এই গান বাজানো হবে বলে মনে করেন?

ডিজে মারুফ : যেকোন ধরণের উৎসব বা অনুষ্ঠানে। যেকোন ডিজে বা লাইভ পার্ফমার ডিজে মারুফের ‘নাগিন’ বাজাতে পারেন।

গ্রুভবিডি : কেন শ্রোতাদের নাগিন শোনা উচিত?

ডিজে মারুফ : বাংলাদেশের মানুষ এই ধরণের মিউজিক পছন্দ করে, বিশেষ করে যখন তারা ডান্সের মুডে থাকে।

গ্রুভবিডি : আপনি কি আরো নতুন গান নিয়ে কাজ করছেন?

ডিজে মারুফ : অবশ্যই, উৎসব ভিত্তিক আর বাংলা ডান্স নাম্বার নিয়ে কাজ করছি ইনশাল্লাহ।